. নিজের ঘরেই তো জান্নাত-জাহান্নাম লক্ষ্য করেছেন কখনও? - SiSTunes.Com

নিজের ঘরেই তো জান্নাত-জাহান্নাম লক্ষ্য করেছেন কখনও?

Sistunes.com -  মা-বাবার প্রতি আমাদের দ্বায়িত্ব কর্তব্য
SiSTunes.Com

রাসূল (সা.) বলেছেন, ‘পিতামাতা তোমার জান্নাত এবং জাহান্নাম’। যদি কেউ পিতামাতার সেবা করতে পারে তাহলে সে জান্নাতে যাবে এবং সেবা না করলে অর্থাৎ অবাধ্য হলে সে জাহান্নামে যাবে।

মা কথাটি অতি মূল্যবান যা লিখে বা ভাষায় প্রকাশ করে বুঝানোর মতো নয় তবুও আমার এই লেখনির মাধ্যমে হয়তো আপনাদের একটু হলেও আমাদের জান্নাত , মানে আমাদের মায়ের সম্পর্কে একটু ধারনা দিতে পারব।

প্রথমে হাদীসটি দেখে নেই-

عَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ، أَنَّ رَسُولَ اللهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: ” مَا مِنْ وَلَدٍ بَارٍّ يَنْظُرُ نَظْرَةَ رَحْمَةٍ إِلَّا كَتَبَ اللهُ بِكُلِّ نَظْرَةٍ حَجَّةً مَبْرُورَةً “، قَالُوا: وَإِنْ نَظَرَ كُلَّ يَوْمٍ مِائَةَ مَرَّةٍ؟ قَالَ: ” نَعَمْ، اللهُ أَكْبَرُ وَأَطْيَبُ “

হযরত ইবনে আব্বাস রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেন, যখন কোন পিতা মাতার ভক্ত সন্তান নিজের পিতা মাতার প্রতি অনুগ্রহের দৃষ্টিতে দেখে, আল্লাহ তাআলা তার প্রতিটি দৃষ্টির বদৌলতে তার জন্য [আমলনামায়] একটি হজ্জ্বে মাবরূর [কবুল হজ্ব] এর সওয়াব দান করেন। সাহাবারা আরজ করলেন, হে আল্লাহর রাসূল! যদি দৈনিক একশবার দৃষ্টি করে? তিনি বললেন, হ্যাঁ, তারও। আল্লাহ মহান ও পবিত্র। {শুয়াবুল ঈমান, হাদীস নং-৭৪৭২, কানযুল উম্মাল, হাদীস নং-৪৫৫৩৫, মিশকাতুল মাসাবীহ, হাদীস নং-৪৯৪৪}

এ হাদিস থেকে আমরা খুব সহজেই বুজতে পারি যে, আমরা যদি আমাদের পিতা-মাতার প্রতি সদয় হই ও তাদের মনে কষ্ট না দেই তাহলে আমরা খুব সহজেই জান্নাত লাভ করতে পারি। 

আরে ভাই , আমরা এমনও মানুষ আছি যারা নিজের মা’কে শরীরে হাত পর্যন্ত তুলি। আমরা কেমন আদম সন্তান ? কোন জামানাতে আছি ? একবার ভেবে দেখুন । যে আপনাকে জন্ম দিলো তার সাথেই আজ এমন ব্যবহার করা কি আপনার ঠিক ?

যে না হলে আপনি হতেন না , দেখতেন না এই দুনিয়া , পূরণ করতে পারতেন না এত রঙ্গীন স্বপ্ন । একদিন এমনও তো হতে পারে আপনার সন্তান আপনার প্রতি ব্যবিচার ও জুলুম চাপাতে পারে। মহান আল্লাহ সবাইকে হেদায়াত দান করুক।

মহান আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনুল কারিমের বিভিন্ন জায়গায় পিতা-মাতার প্রতি সদ্ব্যবহার, উত্তম আচরণ এবং দোয়া করার পদ্ধতি ও নির্দেশ প্রদান করেছেন। আর তা হলো-

উচ্চারণ : ‘রাব্বির হামহুমা কামা রাব্বাইয়ানি সাগিরা।’ (সুরা: বনি ইসরাইল, আয়াত: ২৪)

অর্থ : ‘হে আমাদের পালনকর্তা! তাদের উভয়ের প্রতি রহম করুন; যেমনিভাবে তারা আমাকে শৈশবকালে লালন-পালন করেছেন।’

আমি ‍দেখেছি অনেক মা আছেন যারা আজও দু-বেলা দু-মুঠো খাবার না পেয়ে মুখ লুকিয়ে কাঁদে । সেই সন্তানের প্রতি আমার আল্লাহ কখনই খুশি হবেন না ,বরং গজব বিস্তার হতে পারে । 

Sistunes.Com - মা বাবা নিয়ে হাদিস
দুঃখে ব্যাথিত মা-বাবা


সময় থাকতে মা বাবার খেয়াল রাখুন । মা বাবাকে খুশি রাখতে পারলে মহান আল্লাহ তা’আলা খুশি হবেন । আজ যারা মা-বাবাকে হারিয়েছেন তারা হয়তো মা-বাবার উসিলা করে আর কোন সওয়াব পাবেন না কিন্তু তাদের জন্য যত পারেন দো’আ করেন । মায়ের দিকে একবার  নেক নজরে তাকালে যদি বেহেশত পাওয়া যায় তাহলে কেন আপনি  মক্কা-মদিনাতে বেহেশত খুজেন? হ্যা, আমি বলছি না যে আপনি মক্কা-মদিনাতে যাওয়ার দরকার নেই। আপনি যেতে পারেন । তবে নিজের ‍ৃঘরের মা’কে কষ্ট দিলে কি আপনার পুন্য হবে ? একবার ভেবে দেখুন তো …. আপনার মা আপনার ভালোর স্বার্থে কি না করেছেন তিনি ? ছোট ছোট কথাতে নিজের মা’কে কিন্তু  খুশি রাখা যায়। এমন কোন কথা বলবেন না যেন আপনার মা কষ্ট পায়। আপনার মা-বাবা যদি আপনার দ্বারা সুখি না হয় তাহলে আপনার এ মানব জনম বৃথা বলে মনে করবেন। 

আপনার মা-বাবার জন্য দোয়া করবেন বছরে একদিন না, প্রতিদিন এবং সবসময়। আর প্রতি বছর মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা ঠিক নয়।মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে বলেছেন, মানুষ মরে গেলে তার সব আমল বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু তিনটি কাজ চলতে থাকে। সেগুলো হচ্ছে- সদকায় জারিয়া, ইসলামিক জ্ঞান এবং নেক সন্তান যদি মা-বাবার জন্য দোয়া করে যায় তাহলে সেই দোয়া। মহান আল্লাহ তায়ালা এই দোয়া কবুল করেন

সবশেষে এইটুকু বলব যে, ওইযে মহান আল্লাহ আমাদের মা-বাবাকে জান্নাতের একেকটা ফুলে রূপান্তরিত করুক (আমিন)।


এ পর্যন্ত আমার কথায় কেউ আঘাত পেলে ক্ষমার দৃষ্টিতেই দেখবেন। 


logo
প্রযুক্তির পরিচর্চা ও মুক্ত চিন্তাধারা নিয়ে আমার ভেতরে আমি বসবাস করি।
  • Facebook
  • WhatsApp
  • Instagram
  • সাবস্ক্রাইব করুন নতুন আপডেট পেতে

    রিলেটেড পোস্ট

    কমেন্ট

    Free HTML 2

    Free HTML 3

    Free HTML 4