টমাস হার্ডি (১৮৪০-১৯২৮)



বর্তমান সময়ে টমাস হার্ডির কবিখ্যাতির চাইতে ঔপন্যাসিক হিসেবেই পরিচিতি সর্বত্র। অথচ
তিনি তাঁর সাহিত্যজীবন শুরু করেছিলেন কবিতা দিয়েই। পাঠককুলের নানা প্রতিকূলতার
কারণে তিনি তাঁর শেষ উপন্যাস "জুডস দ্য অবস্কিউর লিখেই জীবনের পরবর্তী ত্রিশ বছর
কবিতার জগতে নিজেকে মেলানাের চেষ্টা করেন। ভিক্টোরিয়ান. পর্বের অন্যান্য কবির মতাে
হার্ডি এতটা খ্যাতিমান না হলেও বিশ শতকের প্রথম দিকে মােটামুটি কবিখ্যাতি অর্জন করেন।
তাঁর কবিতায় মানবিক দিক, বিশেষ করে মানুষের হৃদয়ঘটিত নানা দুঃখ, বেদনা, হতাশা এবং
ক্ষতির বেদনা মূর্ত হয়ে উঠেছে।
হার্ডির জন্ম দক্ষিণ-পশ্চিম ইংল্যান্ডের ডর্চেস্টারে, ১৮৪০ সালে। তিনি তার উপন্যাসে এ
স্থানটিকে ওয়েসেক্স হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি স্থাপত্যবিদ্যায় প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ছিলেন। এ
বিষয়ে আরাে পড়াশােনার জন্য তিনি ১৮৬১ সালে লন্ডনে যান এবং তাঁর কর্মজীবন শুরু করেন।
১৮৬৮ সালে তিনি তাঁর প্রথম উপন্যাস প্রকাশকের হাতে তুলে দেন, কিন্তু তা বাতিল বলে গণ্য
হয়। হার্ডি নতুন উদ্যমে ১৮৭১ সালে তাঁর দ্বিতীয় উপন্যাস রচনা করলেন। "ডেসপারেট
রেমিডিস নামে তা প্রকাশিত হয়। একই বছর তাঁর আরাে উপন্যাস বের হয়। এরপর তিনি
স্থপতির পেশা ছেড়ে দিয়ে পুরােপুরি লেখালেখিতে মনােনিবেশ করলেন। ১৮৭১ থেকে ১৮৯৬
পর্যন্ত তাঁর এই উপন্যাস রচনার ধারা অব্যাহত থাকে। পরবর্তীকালে তিনি কবিতা রচনায়
নিজেকে নিয়ােজিত করেন।
66
হার্ডির, কবিতাগুলােতে প্রাচীন গ্রামীণ জীবনব্যবস্থার ছবিগুলাে সার্থকভাবে ফুটে উঠেছে।
১৯২৮ সালে এই বিখ্যাত ঔপন্যাসিক ও কবি পরলােকগমন করেন। অন্তিম ইচ্ছা অনুযায়ী
তাঁর দেহ তাঁর গ্রামের বাড়িতে সমাহিত করা হয়।

Rea es:
[blogger]

MKRdezign

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget